Home » Slide » পাকিস্তানকে উড়িয়ে সিরিজ নিউজিল্যান্ডের

পাকিস্তানকে উড়িয়ে সিরিজ নিউজিল্যান্ডের

অনলাইন ডেস্ক:

১৬৩ রানের মাঝারি লক্ষ্য! জবাব দিতে নেমে খুব বেশি বেগ পেতে হয়নি নিউজিল্যান্ডের। টিম সেইফার্ট ও কেইন উইলিয়ামসনের ব্যাটে চড়ে সহজেই নয় উইকেটের বিশাল জয় তুলে নিয়েছে কিউইরা।

এই জয়ের মাধ্যমে তিন ম্যাচের সিরিজ এক ম্যাচ হাতে রেখেই ২-০ ব্যবধানে জিতল উইলিয়ামসনের দল। সিরিজের তৃতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টিতে আগামী মঙ্গলবার ফের মুখোমুখি হবে দুই দল।

হ্যামিল্টনে আজ নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে আগে ব্যাট করতে নেমে ছয় উইকেটে ১৬৩ রান সংগ্রহ করে পাকিস্তান। টিম সাউদির দুর্দান্ত বোলিংয়ে একে একে উইকেট হারাচ্ছিল পাকিস্তান। ওই কঠিন মুহূর্তে হাল ধরেন হাফিজ।

সতীর্থদের আসা-যাওয়ার মিছিলে চারে ব্যাট করতে নেমে ৯৯ রান করেন হাফিজ। ইনিংসের শেষ ওভারে কাইল জেমিসনের করা বলে ১৬ রান নেন তিনি। কিন্তু এক রানের জন্য আক্ষেপ রয়ে গেল তাঁর। হাফিজ ছাড়া ২২ রান করেছেন মোহাম্মদ রিজওয়ান। বাকিরা কেউ ২০-এর ঘর পার করতে পারেননি।

৫৭ বলে ক্যারিয়ার সেরা ৯৯ রানের ইনিংস খেলেন হাফিজ। তাঁর ইনিংসে ছিল ১০টি বাউন্ডারি ও পাঁচটি ছক্কা। এর আগে হাফিজের সর্বোচ্চ টি-টোয়েন্টি ইনিংস ছিল ৮৬।

নিউজিল্যান্ডের হয়ে বল হাতে চার ওভারে ২১ রান দিয়ে চারটি উইকেট নেন সাউদি। সমান একটি করে নেন জেমি নিশাম ও ইশ সোধি।

জবাব দিতে নেমে ওপেনিং জুটিতে ৩৫ রান তোলে নিউজিল্যান্ড। ২১ রানে ফিরে যান মার্টিন গাপটিল। এরপর উইলিয়ামসনের সঙ্গে বাকি কাজ সারেন সেইফার্ট। দুই তারকার জোড়া ফিফটিতে চার বল হাতে রেখেই লক্ষ্যে পৌঁছে যায় নিউজিল্যান্ড। ইনিংস শেষে ৮৪ রানে অপরাজিত ছিলেন সেইফার্ট। ৬৩ বলে তাঁর ইনিংসে ছিল আটটি বাউন্ডারি ও তিন ছক্কা। সমান আটটি বাউন্ডারি ও এক ছক্কায় ৫৭ রান করেন অধিনায়ক উইলিয়ামসন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর :

পাকিস্তান : ২০ ওভারে ১৬৩ /৬ (রিজওয়ান ২২, হায়দার ৮, শফিক ০, হাফিজ ৯৯*, শাদাব ৪, খুশদিল ১৪, ফাহিম ৪, ইমাদ ১০*; বোল্ট ৪-০-৩৩-০, সাউদি ৪-০-২১-৪, জেমিসন ৪-০-৪৩-০, কুগেলাইন ৩-০-৩৩-০, নিশাম ২-০-১০-১, সোধি ৩-০-২১-১)।

নিউজিল্যান্ড : ১৯.২ ওভারে ১৬৪/১ (গাপটিল ২১, সেইফার্ট ৮৪*, উইলিয়ামসন ৫৭*; আফ্রিদি ৪-০-৩৮-০, রউফ ৪-০-৩৯-০, ফাহিম ৩.২-০-১৯-১, ওয়াহাব ১-০-১৯-০, শাদাব ৪-০-২৪-০, ইমাদ ৩-০-২৫-০)।

ফল : ৯ উইকেটে জয়ী নিউজিল্যান্ড।

সিরিজ : তিন ম্যাচের সিরিজে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে নিউজিল্যান্ড।

ম্যান অব দা ম্যাচ : টিম সাউদি।

বাংলার কথা/শাকিল আহমেদ