Home » Slide » জামালপুরে ব্রহ্মপুত্র নদে সীমিত পরিসরে অষ্টমী স্নান সম্পন্ন

জামালপুরে ব্রহ্মপুত্র নদে সীমিত পরিসরে অষ্টমী স্নান সম্পন্ন


নাঈম আলমগীর, স্টাফ করসপনডেন্ট
করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে জামালপুরে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের দ্বিতীয় বৃহত্তম উৎসব তিন দিনব্যাপী দয়াময়ী মন্দিরে বাসন্তী পূজা অর্চণা, ব্রহ্মপুত্র নদে গঁঙ্গাপুজা, পূণ্যতীর্থ ব্রহ্মপুত্র নদে অষ্টমী স্নান সীমিত আকারে অনুষ্ঠিত হয়েছে এবং তিন দিনব্যাপী মেলা বন্ধ করা হয়েছে। জামালপুরের শ্রীশ্রী রী দয়াময়ী মন্দির পরিচালনা পরিষদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
ব্রহ্মপুত্র নদে অষ্টমী স্নানের পুরোহিত নিরঞ্জন চক্রবর্তী ও বাদল চক্রবর্তী বলেন, জামালপুরের ব্রহ্মপুত্র নদের দক্ষিণ পশ্চিম তীরে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের দ্বিতীয় বৃহত্তম ধর্মীয় উৎসব পূণ্যতীর্থ ব্রহ্মপুত্র নদে অষ্টমী স্নান উৎসবে যোগ দিতে শেরপুর, ময়মনসিংহ, টাঙ্গাইল ও গাইবান্ধা জেলা ছাড়াও বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলা থেকে প্রতিবছর হাজার হাজার পুণ্যার্থীর সমাগম ঘটে থাকে এবার করোনা ভাইরাস ঠেকাতে অষ্টমী স্নান সীমিত করা হয়েছে। ফলে এবার পূণ্যর্থীর সংখাও খুব কম। শুধু শহরের পূণ্যর্থীরা স্নান করতে এসেছেন। তবে এবার স্নান শুরু হয় সকাল ৭টায় এবং শেষ হয় ১১টায়। এ উপলক্ষে সব জাতি, ধর্ম নির্বিশেষে শ্রীশ্রী রী দয়াময়ী মন্দির প্রাঙ্গণে তিন দিনের বাসন্তী পূজা অর্চণা ও মেলা হয়ে উঠে সার্বজনীন মেলা। এই মেলায় সংসারের নিত্য প্রয়োজনীয় স্টিলের বাসনপত্র, কাঠের আসবাবপত্র, শিশুদের খেলনা ও মেয়েদের কসমেটিকসহ বিভিন্ন খাদ্য পণ্যের পসরা বসে। জামালপুরের প্রায় সাড়ে ৩০০ বছরের পুরনো শ্রীশ্রী রী দয়াময়ী মন্দিরের ইতিহাসের সঙ্গে পূণতীর্থ ব্রহ্মপুত্র নদে গঁঙ্গাপুজা, অষ্টমী স্নান, মেলা ও বাসন্তী পূজা উৎসব, পাঠাবলি বেশ উল্লেখযোগ্য উৎসব। কিন্তু এবার করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে জনসমাগমের ওপর সরকারি নিষেধাজ্ঞা থাকায় অষ্টমী স্নানোৎসব পালন না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নেতৃবৃন্দ। তবে সীমিত আকারে এদিন পূণতীর্থ ব্রহ্মপুত্র নদে অষ্টমী স্নান, শহরের শ্রীশ্রী রী দয়াময়ী মন্দিরে সীমিত আকারে কিছু ধর্মীয় কার্যক্রম পরিচালনার বিষয়ে ইতিমধ্যেই দয়ামন্দিরে ব্যানার টাঙিয়ে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে।
জামালপুরের শ্রীশ্রী রী দয়াময়ী মন্দির পরিচালনা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সিদ্ধার্থ শংকর রায় বলেন, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে সবাইকে সচেতন থাকতে হবে। তাই জনসমাগম না ঘটানোর জন্য সরকারি বিধি-নিষেধ থাকায় এবার সীমিত আকারে করা হচ্ছে ব্রহ্মপুত্র নদে গঁঙ্গাপুজা ও অষ্টমী স্নান, শ্রীশ্রী রী দয়াময়ী মন্দিরে বাসন্তী পূজা এবং পাঠাবলি অনুষ্ঠান। এবার তিন দিনব্যাপী মেলা অনুষ্ঠান সম্পূর্ণ বন্ধ রাখা হয়েছে। এ উপলক্ষে দয়াময়ী মন্দিরেও ধর্মীয় সকল কার্যক্রম সীমিত আকারে পালনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।