Home » Slide » আবার প্রেসিডেন্ট হলেও আর কখনও টুইটারে ফিরতে পারবেন না ট্রাম্প!

আবার প্রেসিডেন্ট হলেও আর কখনও টুইটারে ফিরতে পারবেন না ট্রাম্প!

অনলাইন ডেস্ক:

গত ৬ জানুয়ারি মার্কিন সংসদ ভবন ‘ক্যাপিটল হিলে’ হামলার জেরে ডোনাল্ড ট্রাম্পের টুইটার অ্যাকাউন্ট ব্লক করা হয়েছিল আগেই। এবার আরও কড়া পদক্ষেপ করে জ্যাক ডোরসির সংস্থার ঘোষণা, আর কোনও দিনই টুইটারে অ্যাকাউন্ট খুলতে দেওয়া হবে না আমেরিকার এই সাবেক এই প্রেসিডেন্টকে। এমনকি, ফের কোনও দিন প্রেসিডেন্টের চেয়ারে বসলেও সিদ্ধান্ত বদল হবে না।

বুধবার (বাংলাদেশ সময় বৃহস্পতিবার) এ কথা স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন সংস্থার চিফ ফাইনান্সিয়াল অফিসার (সিএফও)।

আমেরিকার প্রেসিডেন্ট নির্বাচন চালকালীন উস্কানি দেওয়ার অভিযোগে তার প্রচুর টুইট মুছে দিয়েছিল সংস্থাটি। তার আগেও বহুবার তার টুইটে বিতর্ক বা উস্কানির জেরে একই ঘটনা ঘটেছে। অভিযোগ, গত ৬ জানুয়ারি তার উস্কানিমূলক টুইটের জেরেই আমেরিকার সংসদ ভবন ‘ক্যাপিটল’-এ তাণ্ডব চালান ট্রাম্প সমর্থকরা। তারপরই তার অ্যাকাউন্ট স্থায়ীভাবে বন্ধ করে দিয়েছিল টুইটার কর্তৃপক্ষ।

এরপর বুধবার সংস্থার পক্ষ থেকে সিএফও নেড সেগল বলেছেন, “আমাদের নীতিই হল আপনি রাজনীতিবিদ, কোনও সংস্থার কর্ণধার বা পদস্থ সরকারি আমলা যেই হোন না কেন, একবার আপনার অ্যাকাউন্ট সরিয়ে দেওয়া হলে সেটাই পাকাপাকি বন্ধই থাকে।”

অ্যাকাউন্ট বন্ধ করার সময়ও টুইটারে ট্রাম্পের ছিল প্রায় ৮০ লাখ ফলোয়ার। কিন্তু ৬ ফেব্রুয়ারির পর সে সবের দিকে না তাকিয়ে তার অ্যাকাউন্ট সরিয়ে দেয় টুইটার কর্তৃপক্ষ। টুইটার সিএফও আরও বলেন, ‘‘আমাদের নীতি সেইভাবেই তৈরি করা হয়েছে, যাতে কেউ দাঙ্গা বা সহিংসতায় প্ররোচনা না দেন। আর একবার যদি এই অভিযোগে কারও অ্যাকাউন্ট বন্ধ হয়, তা হলে তিনি আর ফিরে আসতে পারবেন না।” টুইটারের স্পষ্ট ঘোষণা, ট্রাম্পের ক্ষেত্রেও এর ব্যতিক্রম হবে না।

সূত্র: ইউএস টুডে, এনবিসি নিউজ

 

বাংলার কথা/শাকিল আহমেদ